পাঁচ দিনের রিমান্ডে আঁখি

Akhi-nasirnagar.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দু মন্দির ও বাড়িঘরে হামলার জন্য দায়ী দেওয়ান আতিকুর রহমান আখিঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সরাফ উদ্দিন রোববার দুপুরে আঁখির রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন।

গেল শুক্রবার আঁখিকে আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন জানানো হয়। আবেদনের উপর শুনানি শেষে পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বিচারক। এর আগে ৫ জানুয়ারি ঢাকা থেকে আঁখিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তাকে ৩০ অক্টোবর নাসিরনগরের গৌরমন্দির ভাংচুর মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

আতিকুর রহমান আখিঁ হরিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। এছাড়া যুবলীগের জেলা কমিটির সাবেক সদস্যও তিনি। তার মাদকদ্রব্যের কারবারও রয়েছে বলে জানা গেছে। হামলার ঘটনায় তার সম্পৃক্তার বিষয়টি উঠে আসলে ধরা পড়ার ভয়ে এতদিন লুকিয়ে ছিলেন আঁখি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুকে ‘ইসলাম অবমাননার’ ছবি পোস্ট করার অভিযোগে গত বছরের ৩০ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলায় ১৫টি মন্দিরসহ হিন্দুদের শতাধিক ঘরে ভাংচুর ও লুটপাট চালানো হয়। হরিপুর ইউনিয়ন থেকে প্রায় ১৪-১৫টি ট্রাক এ করে হামলাকারীরা নাসিরনগরের হিন্দু পল্লীতে এসে হামলা চালায় বলে অভিযোগ ওঠে। যেসব ট্রাকে হামলাকারীরা এসেছিল চেয়ারম্যান আঁখি সেগুলোর ব্যবস্থা ও অর্থের যোগান দিয়েছিলেন বলেও তথ‌্য মিলেছে।

এছাড়া ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দলীয় বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষকে বিপদে ফেলতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সভাপতি ও সাংসদ র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর সমর্থকরা নাসিরনগরে হিন্দুদের ওপর  হামলার নেপথ্যে ছিল বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

Share this post

scroll to top