রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সম্পর্কে জানতে ঢাকায় কফি আনান কমিশনের প্রতিনিধি দল

নিজস্ব প্রতিবেদক : মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ওপর তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা নির্বিচার নির্যাতন ও সহিসংতার মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে ঢাকায় এসেছে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান কমিশনের একটি প্রতিনিধি দল। তিন সদস্যের এই দল কক্সবাবাজারে বসবাসরত বৈধ ও অবৈধ রোহিঙ্গাদের সম্পর্কে খোঁজখবর নেবে। এরপর এ বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠকে বসবেন তারা।

রাখাইন কমিশন নামে পরিচিত দলের তিন সদস্য হলেন- উইন ম্রা, আই লুইন ও ঘাশান সালাম। রোববার সকালে তাদের কক্সবাজার যাওয়ার কথা রয়েছে। সেখানে নির্যাতনের মুখে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলে তারা মিয়ানমারের নিরাপত্তাকর্মীদের চালানো নির্যাতনের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানবেন। পালিয়ে আসার পর তাদের জীবনযাপন সম্পর্কেও খোঁজখবর নেবেন তারা।

প্রতিনিধ দল জেলা প্রশাসন এবং জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গেও কথা বলবে। ঢাকায় ফিরে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক ছাড়াও তারা এ বিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় যোগ দেবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আনান কমিশনের প্রতিনিধি দল রোহিঙ্গাদের সম্পর্কে প্রতিবেদন তৈরি করে সেটি রাখাইন রাজ্য বিষয়ক পরামর্শক কমিশন প্রধান কফি আনানের কাছে কাছে জমা দেবে। এর আগে গত ডিসেম্বরের শুরুতে কফি আনান নিজেও মিয়ানমার সফর করেন।

ওই সফরে রাখাইন রাজ্যের ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা ঘুরে দেখার পাশাপাশি মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট থিন কিউ, সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অং সান সুচির সঙ্গে বৈঠক করেন কফি আনান। তিনি মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনী ও নিরাপত্তাকর্মীদের হাতে রোহিঙ্গা মুসলমানদের নিহত হওয়া এবং সেখানে চলমান অন্যান্য সহিংসতার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

জাতিসংঘের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও নিরাপত্তাকর্মীদের নির্যাতন ও অত্যাচারের মুখে অন্তত ৬৬ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে মিয়ানমার সরকারের প্রতি একাধিকবার আহবান জানানো হয়েছে। এ ইস্যুতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বাংলাদেশের পাশে থাকার অনুরোধ জানিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সমস্যার সমাধান না হওয়া পর্যন্ত শরণার্থীদের আশ্রয় দেয়া হচ্ছে। কিন্তু এই আশ্রয় অনিদিষ্টকাল ধরে দেয়া হবে না।

scroll to top