খালেদার লন্ডন সফর থেকে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত আসবে : মোশাররফ

khandokar-mosharrof-hossein.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন জানিয়েছেন, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার এবারের লন্ডন সফর থেকে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত আসবে।

১৫ জুলাই শনিবার সন্ধ্যায় খালেদা চিকিৎসার জন্য লন্ডনের উদ্দশ্যে রওনা দেবেন। এই সফর ব্যক্তিগত হলেও তা নিয়ে তুমুল আগ্রহের সৃষ্টি হয়েছে। ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় সংসদ নির্বাচন, নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা এবং দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের বিষয়ে দলীয় চেয়ারপারসন ও জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মধ্যে আলোচনা হতে পারে এবং তা থেকে আসতে পারে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত। আর তা আরো স্পষ্ট করলেন খন্দকার মোশাররফ।

তিনি জানান, ‘এ সফরে চেয়ারপারসন দলের জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে কিছু ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেবেন। লন্ডন ভিজিটে উনি হয়তো কোনো আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক ক্ষেত্রে বিভিন্ন যোগাযোগের চেষ্টা করবেন’।

নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন দেয়া প্রসঙ্গে শীর্ষ স্থানীয় এই নেতা আরো জানান, ‘দলের চেয়ারপারসন ও জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যানের আলোচনার অন্যতম এজেন্ডা হতে পারে আগামী নির্বাচনে দলের সম্ভাব্য প্রার্থী তালিকা। এর মধ্যেই দলের নিজস্ব জরিপের মাধ্যমে চূড়ান্ত করা হচ্ছে এই তালিকা। বাদ দেয়া হচ্ছে বিগত আন্দোলনে নিষ্ক্রিয় নেতাদের। তবে অগ্রাধিকার দেয়া হবে গুম-খুনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের’।

বিএনপির বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, চোখ ও পায়ের চিকিৎসার জন্য লন্ডনে বেগম জিয়া প্রায় ৬ সপ্তাহের মতো থাকতে পারেন। এ সময়টা তিনি তার বড় ছেলে ও দলের জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বাসায় কাটাবেন। সফরে তিনি যুক্তরাজ্যের বিএনপি সমর্থক ও প্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটির সাথে কয়েকটি অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। সম্ভাবনা রয়েছে বিদেশি কূটনীতিকদের সাথে বৈঠকেরও।

নীতিনির্ধারকদের একটি দলও খালেদা জিয়ার সাথে লন্ডন যাচ্ছে। সেই দলে রয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু, তার ছেলে ও বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল। এছাড়া, এর আগেই একটি সেমিনারে অংশ নিতে শুক্রবার লন্ডন যাচ্ছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা।

সর্বশেষ গেল বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর চিকিৎসার জন্য লন্ডনে গিয়েছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

Share this post

scroll to top