শ্রীলঙ্কান দলে ফিরলেন লাকমল, দক্ষিণ আফ্রিকায় মার্করাম

স্পোর্টস রিপোর্টার: শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন টি-টোয়েন্টির সিরিজের দলে ওপেনার আইডেন মার্করাম, পেসার এনরিক নর্টে এবং উইকেটকিপার সাইনথেমবা কাশিলকে দলে ডেকেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। মার্করাম এবং নর্টে সবগুলো টি-টোয়েন্টির দলে ডাক পেলেও, কাশিল দলে আছেন শুধু শেষ দুই টি-টোয়েন্টির জন্য। অন্যদিকে, শ্রীলঙ্কা দলে ফিরেছেন পেসার সুরঙ্গা লাকমল এবং অশিথা ফার্নান্দো। ডাক পেয়েছেন লেগ স্পিনার জেফরি ভানডার্সি এবং সাদিরা সামারাউইকরামাও।

প্রথম ম্যাচের দলে থাকলেও পরের দুটি ম্যাচে বিশ্রাম পেয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকান অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি। তার বদলে সেই ম্যাচগুলোতে অধিনায়ক ঘোষণা করা হয়েছে জেপি ডুমিনিকে। বিশ্রাম পেয়েছেন কুইন্টন ডি কক, কাগিসো রাবাদা এবং লুঙ্গি এনজিডিও।

আইডেন মার্করাম এখন পর্যন্ত তার দেশের হয়ে ১৭টি টেস্ট এবং ১৮টি ওয়ানডে খেলেছেন। টেস্টে চারটি সেঞ্চুরিসহ গড়টা বেশ ভালো হলেও ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত বলার মতো কিছু করতে পারেননি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই নর্টে এবং কাশিলের সাথে অভিষেক ঘটতে চলেছে তার। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজেই অভিষেক হয়েছে নর্টের। কাশিল অবশ্য কোনো ফরম্যাটেই দক্ষিণ আফ্রিকার জার্সি গায়ে জড়াননি এখনো। মাত্র ২০ বছর বয়সী কাশিল এখন পর্যন্ত শুধু ১৩টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ এবং ১২টি লিস্ট এ ম্যাচ খেলেছেন।

কিন্তু তার দলে জায়গা পাওয়ার কারণ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার দুর্দান্ত ফর্ম। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার অভিষেকই ঘটেছে গত বছর। ৮টি ফিফটিসহ ২৩ ইনিংসে তার গড় ৪৮.১১। কাশিলকে দলে নেয়ার কারণ হিসেবে এই ফর্মের কথাই বললেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান নির্বাচক লিন্ডা যন্ডি। ‘কাশিল একটি দুর্দান্ত মৌসুম কাটিয়েছে। এই মুহুর্তে ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যানদের মাঝে সে একজন। আমরা তাকে নিয়ে আশাবাদি।

বিশ্বকাপকে সামনে রেখে এই টি-টোয়েন্টি সিরিজে পরীক্ষা নিরিক্ষাই করতে চায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ‘সামনে বিশ্বকাপ। তাই আমরা আমাদের বিকল্পগুলোকে পরীক্ষা করে দেখতে চাই। এরকম পরীক্ষা করে আগেও আমরা প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের বের করে আনতে পেরেছি। এবারো তাই হবে আশা করছি,’ লিন্ডা জানান।

বিশ্বকাপের পরিকল্পনা নিয়ে এতটা গোছালো অবস্থায় নেই শ্রীলঙ্কা। দল নিয়ে বেশ বিপাকেই আছে তারা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্টে নজর কাড়া ওশাডা ফার্নান্দো দলে সুযোগ পাননি। কিন্তু ওয়ানডে দলের অভিশকা ফার্নান্দো, প্রিয়মল পেরেরা এবং অ্যাঞ্জেলো পেরেরার মতো অনভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানরা আছেন এই দলে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি দলে থাকা দিনেশ চান্দিমাল সম্প্রতি শেষ হওয়া শ্রীলঙ্কার ক্লাবভিত্তিক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি রান করেও সুযোগ পাননি দলে।

অবশ্য চোটের কারণেও অনেক ক্রিকেটারকে দলে পাচ্ছে না শ্রীলঙ্কা। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের এখনো পুরোপুরি ফিট নন। দানুস্কা গুনাথিলাকাও মেরুদন্ডের চোটের কারণে দলে বাইরে। পেসার দুশমন্থ চামিরা আরেকবার হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পরেছেন। চোটের কারণে বিশ্বকাপ নাও খেলা হতে পারে কুশাল পেরেরার। বেশ কয়েকদিন ধরেই লাকমলকে শুধু টেস্টের জন্য বিবেচনা করছিল শ্রীলঙ্কান বোর্ড। কিন্তু এই সিরিজের মাধ্যমে আবার সীমিত ওভারের দলে জায়গা পেলেন তিনি।

print