সমীক্ষা ছাড়া ভ্যাট বাস্তবায়নের উদ্যোগ ছায়ার সাথে লড়াই : ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ

Wahiduddin-Mahmud.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক : কোনো ধরনের সমীক্ষা ছাড়াই নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়নের উদ্যোগকে ছায়ার সাথে লড়াই বলে অভিহিত করেছেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ। তিনি বলেন, সক্ষমতার অভাবে নতুন আইনে যে রেয়াত সুবিধা আছে, তা ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো হয়তো নিতে পারবে না। এতে পণ্যের দামে কিছুটা প্রভাব পড়তে পারে। তবে আইন বাস্তবায়নের সাথে সাথেই সার্বিক মূল্যস্ফীতি বাড়বে না বলে মনে করেন তিনি। আগামী বাজেট নিয়ে নিউজ অ্যান্ড নাম্বারসের সাথে আলাপচারিতায় এসব কথা বলেন অধ্যাপক ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ।

জুলাই থেকে বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে নতুন ভ্যাট আইন। নানা প্রতিবাদ ও সমালোচনার মুখেও আইনে অভিন্ন ভ্যাট হার ১৫ শতাংশই থাকছে বলে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। আইন বাস্তবায়নে ভ্যাট অনলাইন প্রকল্পে চলছে প্রশিক্ষণ। নতুন আইনে ভ্যাট আদায় ব্যবস্থা ডিজিটাল হওয়ায় ক্রেতা-বিক্রেতা সবাই লাভবান হবে বলে বিশ্বাস করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড। এ ধরনের সার্বজনীন একটি আইন বাস্তবায়নের আগে সমীক্ষার প্রয়োজনীয়তা ছিল বলে মনে করেন ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ।

তিনি বলেন, অভিন্ন হারে ভ্যাট আদায় করলে কোন পণ্যে কি ধরনের প্রভাব পড়বে তার কোনো সীমক্ষা হয়নি। এমনকি ভ্যাটযোগ্য কতো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আছে সেই হিসেবও করা হয়নি। এমন প্রেক্ষাপটে সরকার ও ব্যবসায়ী নেতারা ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন নিয়ে যে রশি টানাটানি করছে, তাকে ছায়ার সাথে লড়াই বলে মন্তব্য করেছেন ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ।

ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যেই অভিযোগ উঠেছে, নতুন আইনের বাস্তবায়নের বিষয়ে তাদের কোনো প্রশিক্ষণ দেয়া হয়নি। অর্থনীতিবিদ ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ বলছেন, এসব প্রতিষ্ঠানের যে আয় তাতে সেগুলো ভ্যাটের আওতায় পড়বে। কিন্তু সক্ষমতার অভাবে হয়তো সেগুলো রেয়াত সুবিধা নিতে পারবে না। ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন হলে হঠাৎ করে পণ্যমূল্য বেড়ে মূল্যস্ফীতি বাড়ার আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ী ও অর্থনীতিবিদরা। তবে ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ বলছেন, জুলাইয়ে আইন কার্যকরের পরপরই মূল্যস্ফীতি বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা কম।

Share this post

scroll to top