বিশ্বকাপের পরেই অবসর নিচ্ছেন তাহির

স্পোর্টস ডেস্ক: ২৬ রানে ৩ উইকেট নিয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে জিতিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকাকে। ঘোষণাটা আসলো তার পরই। বিশ্বকাপের পরই ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে অবসর নেবেন ইমরান তাহির। ৪০ বছর বয়সী এই লেগস্পিনার অবশ্য জানিয়েছেন, ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি খেলে যাবেন তিনি।

তাহিরের সাথে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের চুক্তি ছিল এই বছরের জুলাই পর্যন্ত। সময় প্রায় শেষের দিকে চলে আসার পরও এই চুক্তির নবায়ন না হওয়াতে এই ধরনেরই কোনো একটি সিদ্ধান্ত আসতে যাচ্ছে, তা অনুমিতই ছিল। তাহির জানালেন, তার এই সিদ্ধান্তকে পুরোপুরি সমর্থন দিচ্ছে বোর্ড।

দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের অফিশিয়াল স্টেটমেন্টে তাহির জানিয়েছেন, ‘আমি সবসময়ই বিশ্বকাপ খেলতে চেয়েছি। আমাদের দলটি দারুণ। আমি এই দলের হয়ে বিশ্বকাপ খেলতে পেরে সৌভাগ্যমান। কিন্তু বোর্ড এবং আমি, সবাই মিলেই সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আমার বিশ্বকাপেই থেমে যাওয়াটা ভালো হবে। সে কারণেই আমরা চুক্তি নবায়ন করিনি।’

‘এরপর ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা আমাকে বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি লিগে খেলতে যাওয়ার স্বাধীনতা দিয়েছে। কিন্তু আমি দক্ষিণ আফ্রিকার হয়েও টি-টোয়েন্টি খেলতে চাই। ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত তো অবশ্যই। আমার মনে হয় আমি টি-টোয়েন্টি দক্ষিণ আফ্রিকাকে সাফল্য এনে দিতে পারবো।’

তাহির ৯৫টি ওয়ানডেতে দক্ষিণ আফ্রিকার জার্সি গায়ে মাঠে নেমেছেন। ২৫.৫৬ গড়ে নিয়েছেন ১৫৬টি উইকেট নিয়েছেন। মাত্র ৮৯ ম্যাচে ১৫০টি উইকেট নিয়ে তিনি সবচেয়ে কম ম্যাচে ১৫০ উইকেট নেয়ার কীর্তি গড়েছেন। ২০১১ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তার অভিষেক ঘটে। সেই বিশ্বকাপে দারুণ পারফর্ম করেছিলেন তাহির। দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি ছিলেন তিনি। এরপরে আর ফিরে তাকাতে হয়নি তাহিরকে। গত ৮ বছর ইনজুরি ছাড়া অন্য কোনো কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার দল থেকে বাদ পড়েন নি তিনি।

তাহিরের মতে, তরুণ স্পিনারদের জায়গা দিতেই তার চলে যাওয়াটা এখন জরুরি। ‘ওয়ানডেতে এখন তাবারেজ সামসি, অ্যারন ফাঙ্গিসো, শন ভন বার্গরা আছে। তারা তরুণ এবং তাদের সুযোগ দরকার। আমি নিজেই জায়গা না ছেড়ে দিলে একসময় এমন হবে যে আমাকে দল থেকে বাদ দিতে হবে। আমি এভাবে জায়গা হারাতে চাই না। আমি দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সবসময় খেলে যেতে চাই। কিন্তু বাস্তবতা এটাই।’

‘জীবনের কিছু কিছু সিদ্ধান্ত খুব কঠিন হয়। এটা আমার জীবনের সবচেয়ে বড় সিদ্ধান্ত। ভবিষ্যতে আমার জায়গা তরুণরা নিবে, তারা ভালো করবে, এটাই আমি চাই।’

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে দারুণ পারফর্ম করেছেন তাহির। তার এই বোলিংয়ে মুগ্ধ অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি, ‘এটাই আসল ইমরান। এই ইমরানই আমাদের আগে ম্যাচ জেতাতো। এই ইমরানকেই আমরা বিশ্বকাপে দেখতে চাই।’

print